আপডেট
স্বাগতম! ইসলামিক সঠিক জ্ঞান নিয়ে ”ইসলামী জীবন” আপনার পাশে। নিয়মিত ভিজিট করুন, দেখুন বিষয়ভিত্তিক পোস্টগুলো আর শিখতে থাকুন... হোয়াটসেপ সার্ভিসে জয়েন হতে “Post” লিখে সেন্ড করুন এই “01511993330” হোয়াটসেপ নাম্বারে। আমাদের ওয়েবসাইট www.islamijibon.net । ধন্যবাদ!
বাংলা ভাষায় অলাভজনক বৃহত্তম ইসলামিক ওয়েবসাইট বানানোর প্রত্যয়ে কাজ করে যাচ্ছে ইসলামী জীবন টিম। আসছে মোবাইল অ্যাপলিকেশন... সাইট www.islamijibon.net

রবিবার, ১৭ মে, ২০২০

দুধ পানকারী মাদানী মুন্না (শিশু)

{নবী করীম صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর ৬ টি মু'যিজা}

(১) দুগ্ধপোষ্য মাদানী মুন্না  কথা বললো!

রাসূলে পাক صَلَّی اللّٰهُ تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم মক্কা শরীফের একটি ঘরে উপস্থিত ছিলেন। তখন এক ব্যক্তি হুযুর পুরনূর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর খেদমতে এক মুন্নাকে (Infant) কাপড়ে জড়ায়ে নিয়ে আসলো। যে সেদিনেই জন্মগ্রহণ করেছিলো। হুযুর পুরনূর صَلَّی اللّٰهُ تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم সে মুন্নাকে জিজ্ঞাসা করলেন: আমি কে? সে বললো: “আপনি আল্লাহর রাসূল।” রাসূলে পাক, হুযুর পুরনূর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم ইরশাদ করলেন: “তুমি সত্য বলেছ, আল্লাহ্ তাআলা তোমাকে বরকত দান করুক।” (মা’রিফাতুচ্ছাহাবা, ৪র্থ খন্ড, ৩১৪, ৬৩৯৫ পৃষ্ঠা)

প্রিয় মাদানী মুন্না এবং মাদানী মুন্নীরা! আল্লাহ্ তাআলা আমাদের প্রিয় নবী صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم কে এমন মর্যাদা দান করেছেন যে, দুগ্ধপোষ্য মাদানী মুন্নাও রহমতে আলম, হুযুর পুরনূর  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہ وَسَلَّم  কে রাসূল হওয়ার স্বাক্ষী দিলো। আসুন! আল্লাহ্ তাআলার প্রিয় রাসূল صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর আরো মু’জিযা শুনি:

(২) মাদানী মুন্নার হাত পুড়ে গেলো!

আমাদের প্রিয় নবী, রাসূলে আরবী, হুযুর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  এর সাহাবী হযরত মুহাম্মদ বিন হাতিব رضى الله عنه বলেন: আমার আম্মাজান رضى الله عنها আমাকে বলেন: আমি তোমাকে নিয়ে আবিসিনিয়ার দেশ হতে আসছিলাম, পথিমধ্যে মদিনা শরীফ থেকে কিছু দূরে আমি খাবার রান্না করলাম ঐ সময় লাকড়ী শেষ হয়ে গেলো, আমি লাকড়ী আনতে গেলাম তখন তুমি হাঁড়িটি (পাত্র) টান দিয়েছিলে, হাঁড়িটি তোমার হাতের উপর পড়ল এবং তোমার হাত পুড়ে গেলো।
আমি তোমাকে নিয়ে মুহাম্মদুর রাসূলুল্লাহ্ صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  এর খিদমতে হাজির হলাম এবং আরয করলাম: ইয়া রাসূলাল্লাহ صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم ! আমার মাতা পিতা আপনার জন্য উৎসর্গ! এ হলো মুহাম্মদ বিন হাতিব। রাসূলে আকরাম- صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  তোমার মাথার উপর তাঁর বরকতময় হাত বুলিয়ে দিলেন এবং তোমার জন্য দোয়া করলেন, অতঃপর তোমার হাতে তাঁর বরকতময় থুথু লাগালেন। যখন আমি তোমাকে নিয়ে সেখান থেকে উঠলাম তখনই তোমার হাত পরির্পূণ ঠিক হয়ে গিয়েছিলো। (মুসনাদে ইমাম আহমদ বিন হাম্বল, ৫ম খন্ড, ২৬৫ পৃষ্ঠা, হাদীস নং ১৫৪৫৩ সংকলিত)

(৩) কিছু চুল সাদা এবং কিছু কালো

হযরত সাইব رضى الله عنه  এর মাথার মাঝখানের চুল একেবারে কালো (Black) ছিলো কিন্তু অবশিষ্ট মাথার চুল এবং দাঁড়ি সাদা (White) ছিলো। জিজ্ঞাসা করা হলো! কি ব্যাপার! আপনার কিছু চুল সাদা এবং কিছু কালো? বললেন: আমি বাল্যকালে ছেলেদের সাথে খেলছিলাম, রাসূলে করীম  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم আমার পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন তখন আমি সালাম আরয করলাম। হুযুর  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  সালামের উত্তর দিলেন এবং জিজ্ঞাসা করলেন: আপনি কে? আমি আমার নাম বললাম, তখন রাসূলে আকরাম, হুযুর পুরনূর  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم আমার মাথার উপর তাঁর বরকতময় হাত বুলিয়ে দিলেন এবং আমাকে বরকতের দোয়া করলেন। আমার মাথার যে সকল জায়গায় হুযুরে আকরাম  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর হাত মোবারক লেগেছে, ঐ চুল সাদা হয়নি। (মু’জাম কবীর, ৭ম খন্ড, ১৬০ পৃষ্ঠা, হাদীস নং ৬৬৯৩ সংকলিত)

(৪) প্রিয় নবীর প্রিয় হাত মোবারক

হযরত জাবির বিন সামুরা رضى الله عنه বলেন: দয়াল নবী, রাসূলে আরবী صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর পাশ দিয়ে যখন শিশুরা অতিক্রম করতো, তখন রহমতে আলম, হুযুর পুরনূর  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  তাদের কারো এক গালের (Cheek) উপর এবং কারো উভয় গালে উপর তাঁর স্নেহভরা হাত মোবারক বুলিয়ে দিতেন, আমি তাঁর (হুযুর)  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম তখন তিনি  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  আমার একগালের উপর তাঁর প্রিয় হাত মোবারক বুলিয়ে দেন। ঐ গাল যার উপর হুযুর পুরনুর  صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم তাঁর বরকতময় হাত বুলালেন সে গাল ২য় গাল অপেক্ষা অধিক সুন্দর (Beautiful)হয়ে গেলো। (কানযুল উম্মাল, ১৩তম খন্ড, ১৩৫ পৃষ্ঠা, হাদীস নং ৩৬৮৭৬)

(৫) ছোট শরীর বিশিষ্ট মাদানী মুন্না

হযরত আব্দুর রহমান বিন যায়েদ رضى الله عنه যখন ভূমিষ্ট হলেন তখন তাঁর নানাজান হযরত আবু লুবাবা رضى الله عنه  তাকে একটা কাপড়ে জড়ায়ে সুলতানে মদীনা, হুযুর পুরনূর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর খিদমতে পেশ করলেন এবং আরয করলেন: ইয়া রাসূলাল্লাহ্ صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  ! আমি আজ পর্যন্ত এতছোট শরীর বিশিষ্ট শিশু দেখিনি। মাদানী আক্বা, উভয় জগতের দাতা, প্রিয় মুস্তফা صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم শিশুটিকে গুট্টি (অর্থাৎ প্রথম বার তার মুখে খাবার ইত্যাদি কোন বস্তু দিলেন) মাথার উপর বরকতময় হাত বুলালেন এবং বরকতের দোয়া করলেন। মাদানী আক্বা, প্রিয় মুস্তফা صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  এর দোয়ার বরকত এভাবে প্রকাশিত হলো যে, হযরত আব্দুর রহমান বিন যায়েদ رضى الله عنه যখন কোন সম্প্রদায়ের (Nation) মাঝে অবস্থান করতেন তখন তাঁকে সবার চেয়ে উঁচু (Tall) দেখা যেতো। (আল্ ইসাবাতু, ৫ম খন্ড, ২৯ পৃষ্ঠা, নং ৬২২৭)

(৬) বোবা শিশু কথা বলতে লাগলো

রাসূলে পাক صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর এক মহিলা সাহাবী হযরত উম্মে জুন্দুব رضى الله عنها বলেন: এক মহিলা তার বোবা (Dumb) ছেলে কে নিয়ে নবীদের সরদার, হুযুরে আনওয়ার صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم এর খেদমতে উপস্থিত হলো এবং আরয করলো: ইয়া রাসূলাল্লাহ্ صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم  ! আমার ছেলের কোন সমস্যা আছে যার কারণে সে কথা বলতে পারছে না। এটা শুনে দয়ালু আক্বা, হুযুর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم ইরশাদ করলেন: (একটি পাত্রে) অল্প পানি নাও। পানি নেওয়া হলো। হুযুর صَلَّی اللّٰهُ  تَعَالٰی عَلَیْہِ  وَاٰلِہٖ وَسَلَّم (এতে) উভয় হাত ধৌত করলেন আর মুখে পানি নিয়ে কুলি করলেন এবং ইরশাদ করলেন: যাও আর এই পানি তোমার শিশুকে পান করাও এবং কিছু পানি তার উপর ছিটিয়ে দাও আর আল্লাহ্ তাআলার দরবারে তার জন্য সুস্থতা চাও।”
অতঃপর পরের বছরে যখন আমি ২য় বার সেই মহিলার সাথে সাক্ষাৎ করলাম এবং তার ছেলের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলাম তখন তিনি বললেন: এখন আমার ছেলে পরিপূর্ণ সুস্থ (Healthy) এবং অনেক বুদ্বিমান (Wise) হয়ে গেছে। (ইবনে মাজাহ, ৪র্থ খন্ড, ১২৯ পৃষ্ঠা, হাদীস নং ৩৫৩২ সংকলিত)
>>>বইয়ের বাকি অংশ পড়ুন: দুধ পানকারী মাদানী মুন্না (২), দুধ ও দুধ পান বিষয়ক আলোচনা
--------
লিখাটি আমীরে আহলে সুন্নাত হযরত মাওলানা মুহাম্মদ ইলয়াস আত্তার কাদেরী রযভী কর্তৃক ছোটদের জন্য লিখিত ৫৪ পৃষ্ঠা সম্বলিত "দুধ পানকারী মাদানী মুন্না" নামক রিসালার ৪-১২ নং পৃষ্ঠা হতে সংগৃহীত। অতি গুরুত্বপূর্ণ এই রিসালাটি অবশ্যই সংগ্রহে রাখুন। অন্যকে উপহার দিন। 
যারা মোবাইলে (পিডিএফ) রিসালাটি পড়তে চান তারা ফ্রি ডাউনলোড করুন ।
ইসলামীক বাংলা বইয়ের লিংক এক সাথে পেতে এখানে ক্লিক করুন
মাদানী চ্যানেল দেখতে থাকুন

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Thanks for supporting.

পোস্ট শ্রেণি

অযু-গোসল-পবিত্রতা (12) আপডেট চলমান (25) আমাদের কথা ও অন্যান্য বিষয়াবলী (6) আমাদের প্রিয় নবী ﷺ (4) আরবি মাস ও ফযীলত (11) ইসলামী ইতিহাস ও শিক্ষনীয় ঘটনা (4) ইসলামী জীবন ও সুন্দর চরিত্র (4) ঈদ-কাযা-জানাযা-তারাবী-নফল ও অন্যান্য নামায (5) উত্তম আমল ও সাওয়াবের কাজ (4) কুরআন-তাফসীর ও হাদিস (16) কুরবানী (6) চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য কথন (14) জিকির-দোআ-দুরূদ ও ফযীলত (8) নবী-সাহাবী ও আওলিয়াদের জীবনী (8) নামায (17) পর্দা ও লজ্জাশীলতা (16) ফয়যানে জুমা (3) বদ আমল ও গুনাহের কাজ (2) মওত-কবর-হাশর ও আযাব (12) মাসআলা-মাসাইল ও প্রশ্নোত্তর (4) মাসাইল (30) যাকাত-ফিতরা ও সদক্বাহ'র বিধান (1) রোযা/রমযানের বিধান ও ফযীলত (9) সুন্নাত ও আদব/ মাদানী ফুল (38) হজ্ব-ওমরাহ ও যিয়ারতে মদিনা (27)

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন