আপডেট
স্বাগতম! ইসলামী জীবন ব্লগে নিয়মিত ভিজিট করুন আর শিখুন ইসলামীক জ্ঞান। শেয়ার করুন আপনার সোস্যাল সাইটে। প্রয়োজনে লাইভ চ্যাটের সহায়তা নিন। হোয়াটসঅ্যাপে ইসলামীক পোষ্ট পেতে +880 1946 13 28 62 নাম্বারে Post লিখে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ দিন। ধন্যবাদ!
বাংলা ভাষায়, অলাভজনক, বৃহত্তম ইসলামীক ওয়েবসাইট বানানোর প্রত্যয়ে “ইসলামী জীবন“ কাজ করে যাচ্ছে। www.islamijibon.net
Showing posts with label চিকিৎসা. Show all posts
Showing posts with label চিকিৎসা. Show all posts

Sunday, July 29, 2018

অশুভ প্রথা বা কুসংস্কারে বিশ্বাস (১)

অলক্ষুনে কে? 

কোন বাদশা একদা তার সভাসদদের নিয়ে দরবারে বসা ছিলো। এমন সময় কালো বর্ণের এক চোখ কানা ব্যক্তিকে নিয়ে আসা হল বাদশার সম্মুখে। সবাই অভিযোগ করল, এই লোকটি এমন ধরনের অলক্ষুনে যে, কেউ যদি সকালে উঠে একে দেখে, সেই দিন তাকে অবশ্যই কোন না কোন ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। সুতরাং তাকে দেশ থেকে বহিস্কার করে দেওয়া হোক। কিছুক্ষণ চিন্তা করার পর বাদশা বললেন, চূড়ান্ত বিচার করার আগে আমি নিজেই তা পরীক্ষা করে দেখবো, কাল সকালে সর্বপ্রথম আমি তাকে দেখবো, তারপর অন্য কাজে হাত দেবো। পরদিন সকালে বাদশা যখন ঘুম থেকে উঠলো, দরজা খুলতেই সর্বপ্রথম সেই কানা ব্যক্তিটিকেই দাঁড়ানো দেখতে পেলো। তাকে দেখেই বাদশা পেছনে ফিরে গেলো এবং দরবারে যাবার জন্য প্রস্তুতি নিতে লাগলো। পোষাক পাল্টাবার পর বাদশা যখনই জুতোয় পা দিলো, তখনই তাতে লুকিয়ে থাকা বিষাক্ত বিচ্ছু তাকে দংশন করলো।

Saturday, July 29, 2017

অযু ও বিজ্ঞান (পর্ব-৭)

অযুর রহস্য শুনার কারণে ইসলাম গ্রহণ

এক  ব্যক্তির  বর্ণনা:  “আমি  বেলজিয়ামে  কোন  এক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অমুসলিম শিক্ষার্থীকে ইসলামের     দাওয়াত দিলাম।       সে       জিজ্ঞাসা করলো:   “অযুর মধ্যে   কি কি বৈজ্ঞানিক রহস্য  আছে?” আমি নির্বাক হয়ে যাই। তাকে একজন আলিমের নিকট নিয়ে গেলাম কিন্তু তাঁর কাছেও এর  কোন জ্ঞান  ছিল  না।  অবশেষে  বিজ্ঞানের  জ্ঞান    রাখেন    এমন এক   ব্যক্তি    তাকে   অযুর যথেষ্ট সৌন্দর্য বর্ণনা করলো কিন্তু গর্দান মাসেহ করার     রহস্য   বর্ণনা   করতে    তিনিও অপারগ হলেন।  এরপর  সে  অমুসলীম  (বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী) চলে যায়। কিছু  দিন পর  এসে বলল, “আমাদের      প্রফেসর লেকচারের মাঝখানে  বলেছেন, “যদি  গর্দানের পৃষ্ঠদেশে  ও  দু’পার্শ্বে  দৈনিক কয়েক ফোটা  পানি  লাগিয়ে    দেয়া হয়  তাহলে    মেরুদন্ডের    হাড়  ও দূষিত     মজ্জার  সংক্রমণ  থেকে সৃষ্ট ব্যাধি সমূহ  থেকে  নিরাপদ থাকা যায়।”    এটা     শুনে অযুর    মধ্যে    গর্দান মাসেহ্   করার   রহস্য  আমার  বুঝে  এসে   যায়। অতএব  আমি মুসলমান  হতে  চাই    এবং  শেষ পর্যন্ত বাস্তবেই সে মুসলমান হয়ে গেলো।

صَلُّوْا عَلَی  الْحَبِیْب!          صَلَّی اللهُ  تَعَالٰی عَلٰی مُحَمَّد

পশ্চিম জার্মানীর সেমিনার

Wednesday, June 14, 2017

অপারেশন ছাড়াই ডেলিভারী

সন্তান      জন্মের      সময়      সহজতার        ব্যবস্থাপত্র  (মরিয়ম বিবির ফুল*)

মরিয়ম  বিবির  ফুল:  কোন  বাচ্চা   জন্মের   সময় ব্যথা শুরু হলে কোন খোলা বাসন বা বোতলের পানিতে ঢেলে দেওয়া হয়, তবে   যতই ভিজতে  থাকবে     ও      প্রষ্ফুটিত     হতে     থাকবে       আল্লাহ্ তাআলার দয়ায়  মরিয়ম  বিবির ফুলের বরকতে বাচ্চার জন্ম  খুব সহজ ভাবেই  হবে। 

অপারেশন ছাড়া ডেলিভারী 

অপারেশন  ছাড়াই জন্ম হয়ে গেলো (মরিয়ম বিবির ফুলের উপকারীতা)

দা’ওয়াতে ইসলামীর জামেয়াতুল মদীনার এক শিক্ষক ইসলামী ভাইয়ের বর্ণনা:  আমার দ্বিতীয় বাচ্চার জন্মের  দিন ছিলো।  আমার  বাচ্চার  মা  হাসপাতালের  নির্দিষ্ট কক্ষে   (লেবার রুমে) ভর্তি ছিলো। কিছু সময় পর আমি এক মাদানী মুন্নার জন্মের          সুসংবাদ        পেলাম।         হাসপাতালের অপেক্ষমান    রুমে এক   ব্যক্তির   সাথে    সাক্ষাত হলো।  তখন তিনি কথায়  কথায় মরিয়ম বিবির ফুলের  কথা     আলোচনা করলেন,  তখন  আমি জিজ্ঞাসা  করার     পর  সে  বললো:  যদি বাচ্চার  জন্মের   পর   ব্যথা শুরু হয়, তবে  এই  শুষ্ক  ফুল কোন   খোলা বাসন   বা বোতলের  পানিতে যদি ঢেলে  দেওয়া হয়,   তবে  যতক্ষণ    পর্যন্ত তাজা  থাকবে       এবং       ফুটতে      থাকবে।       আর      এর উপকারীতা   হলো    এটাই    যে,   বাচ্চার জন্মের সময় সহজতা  হয়।  তারপর  কম  ও  বেশি  দুই  বছর   পর  যখন   তৃতীয়  বাচ্চার   জন্মের  পর্যায়ে আসলো। তখন   মহিলা ডাক্তার   আমার  বাচ্চার মাকে অপারেশনের মাধ্যমে বাচ্চা জন্মের জন্য  মানসিক   ভাবে প্রস্তুত   থাকতে  বললেন।   আমি মরিয়ম বিবির ফুলের কথা স্মরণ করলাম, তখন আমি  দেশীয়   ঔষধের দোকান    থেকে   মরিয়ম বিবির   ফুল  সংগ্রহ   করলাম। 
 আর   যখন  বাচ্চা জন্মের সময় আসলো,  তখন আমি সেটা পানির মধ্যে   ঢেলে   দিলাম।    আল্লাহ্    তআলার   দয়ায় অপারেশন   ছাড়াই    মাদানী   মুন্নীর জন্ম   হয়ে  গেলো।   এক    বছর    পর   চতুর্থ   বাচ্চার   জন্যও ডাক্তার অপারেশনের জন্য নির্দিষ্ট করে দিলেন, কিন্তু  আমি   অন্যান্য ওযীফার পাশাপাশি   (যেটা মাকতাবাতুল  মদীনা   কর্তৃক     প্রকাশিত  কিতাব “ঘরোয়া চিকিৎসা” এর মধ্যে  রয়েছে) মরিয়ম  বিবির ফুল ব্যবহার করি। এভাবে ও অপারেশন ছাড়াই মাদানী  মুন্নীর জন্ম   হয়ে  গেলো।   এর কমপক্ষে    দুই    বছর   পর    যখন    পঞ্চম   বাচ্চার জন্মের    পর্যায় আসলো,    তখন    আমি   আমার ঘরের     পাশ্ববর্তী    হাসপাতালে    নিয়ে    গেলাম।  সেখানেও     ডাক্তাররা মেডিকেল     রিপোর্ট     ও  তাদের   গবেষণার   দৃষ্টিতে অপারেশন    করতে বলেন। আমি  চেষ্টা করে টাকার  ব্যবস্থাও প্রস্তুত রেখেছিলাম  এবং ওযীফা  আদায়ের  পাশাপাশি যখন  জন্মের  সময়  হলো,  তখন মরিয়ম  বিবির ফুল  খোলা  বোতলের    পানিতে   ঢেলে    দিলাম, ডাক্তার     অপারেশন ছাড়া     জন্মানোর     জন্য অনেক    চেষ্টা     করার   পর    অপারেশনের   জন্য  টাকা    জমা    করানোর     জন্য     বললেন।    এখন অপারেশন          ছাড়া           উপায়          নেই           এবং অপারেশনের    ব্যবস্থাও   শুরু   করে   দেন।  টাকা ব্যাংকে ছিলো, হাসপাতালের   পাশে   এটিএম  বুথ থেকে টাকা বের   করলাম এবং কাউন্টারের কাছে   জমা   করে   দিলাম।  কিন্তু অপারেশনের পূর্বেই আল্লাহ্ তাআলার দয়ায় নিরাপদে মাদানী মুন্নার    জন্মের   সংবাদ পেলাম।    মরিয়ম   বুটির ব্যবহারের  জন্য  চার  ও  পাঁচ  ইসলামী  ভাইকে  পরামর্শ দিলাম। তাদের মধ্য থেকে  একজনকে ডাক্তার   অপারেশনের জন্য    বলে   রেখেছিলো اَلْحَمْدُ  لِلّٰہِ  عَزَّوَجَلَّ  তার   ঘরে   অপারেশন   ছাড়াই  জন্ম হয়ে গেলো।
 
*এটাকে মরিয়ম বুটি এবং মরিয়মের পাঞ্জাও বলা হয়। পাঞ্জার আকৃতিটা শুষ্ক অবস্থায় হয়ে থাকে। পাঁশারীর (দেশীয় ঔষধের) দোকানেও পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মক্কা মদীনায় স্থানীয় মহিলারা ও ছেলেরা জমিনের উপর রেখে জিনিসগুলো বিক্রি করে এবং তাদের কাছেও পাওয়া যাবে। এর বৈশিষ্ট্য ও বরকত সম্পর্কে অবহিত আশিকানে রাসূল সেখান থেকে তাবারুক আকারে গ্রহণ করেন এবং অন্যান্যদেরকেও উপহার হিসেবে পেশ করেন। যাকে দেওয়া হয় তার সেটা ব্যবহারের পদ্ধতি জানাটা জরুরী একটু পুরাতন হলে আরো ভালো।

কাঁদতে কাঁদতে অন্ধ হয়ে যাওয়া মহিলা

হযরত সায়্যিদুনা হাওয়াছ رَحۡمَۃُ  اللّٰہ  تَعَالٰی   عَلَیہِ বলেন: আমরা ইবাদতগুজার মহিলা রাহেলার নিকট গেলাম। সে অধিক হারে রোযা রাখতো। এমনভাবে কাঁদতো যে, তার চোখের জ্যোতি চলে যায়। এতো বেশি নামায পড়তো যে, দাঁড়াতে পারতো না তাই বসেই নামায আদায় করতো। আমরা তাকে সালাম করলাম। অতঃপর মহান আল্লাহ্ তাআলার ক্ষমা ও অনুগ্রহের আলোচনা করছিলাম যাতে তার অবস্থা স্বাভাবিক হয়ে যায়। সে এ কথা শুনে একটি চিৎকার দিলো এবং বললো: “আমার নফসের অবস্থা আমার জানা আছে; অর্থাৎ- সে আমার অন্তরকে আঘাতপ্রাপ্ত করে দিয়েছে এবং হৃদয় টুকরো টুকরো হয়ে গেছে। আল্লাহ্র কসম! হায়! আমার ইচ্ছা হলো, তো যদি আল্লাহ্ তাআলা আমাকে সৃষ্টিও না করতেন এবং আমি কোন আলোচনার যোগ্য বস্তুও না হতাম। এটা বলে পুনরায় নামাযে দাঁড়িয়ে গেলো। (ইহ্ইয়াউল উলূম, ৫ম খন্ড, ১৫২ পৃষ্ঠা) আল্লাহ্ তাআলার রহমত তাঁর উপর বর্ষিত হোক এবং তাঁর সদকায় আমাদের ক্ষমা হোক। 
اٰمِين بِجا هِ النَّبِيِّ الْاَمين صَلَّی اللہُ تَعَالٰی عَلَیْہِ وَاٰلِہٖ وَسَلَّم
আহ সলবে ঈমান কা খউফ খায়ে জাতা হে,
--------
লিখাটি আমীরে আহলে সুন্নাত হযরত মাওলানা “মুহাম্মদ ইলয়াস আত্তার” কাদেরী রযভী কর্তৃক লিখিত নামায বিষয়ের এনসাইক্লোপিডিয়া ও মাসাইল সম্পর্কিত “নামাযের আহকাম” নামক কিতাবের ৫১-৫৩ নং পৃষ্ঠা হতে সংগৃহীত। কিতাবটি নিজে কিনুন, অন্যকে উপহার দিন।
যারা মোবাইলে (পিডিএফ) কিতাবটি পড়তে চান তারা ফ্রি ডাউনলোড করুন অথবা প্লে স্টোর থেকে এই কিতাবের অ্যাপ ফ্রি ইন্সটল করুন
বাংলা ইসলামীক বইয়ের লিংক এক সাথে পেতে এখানে ক্লিক করুন
মাদানী চ্যানেল দেখতে থাকুন

Thursday, June 1, 2017

দুধপানকারী শিশুদের জন্য ১৬টি মাদানী ফুল

প্রিয় ইসলামী ভাইয়েরা! আপনারা শুনলেন তো! মাদানী কাফিলার কি বাহার রয়েছে। বাচ্চাদের বিভিন্ন রোগ থেকে বাঁচানোর জন্য প্রথমেই যে সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা নেয়া হয় তা যথেষ্ট। এই মর্মে এখানে ১৬টি মাদানী ফুল দেখুন।
Baby Care, শিশুর যত্ন 
(১) ছেলে বা মেয়ে জন্ম হওয়ার সাথে সাথে দ্রুত ৭ সাতবার يَا بَرُّ (প্রথমে ও শেষে একবার করে দুরূদ শরীফ) পড়ে যদি বাচ্চাকে ফুঁক দেয়া হয় তাহলে اِنْ شَاءَ اَلله عَزَّوَجَل বালিগ হওয়া পর্যন্ত বিপদাপদ থেকে নিরাপদ থাকবে।

(২) জন্ম হওয়ার পর বাচ্চাকে প্রথমে নিমপাতার সাথে লবণ মিশিয়ে গরম পানি দিয়ে গোসল দিন, এরপর শুধু পানি দ্বারা গোসল দিন। তাহলে اِنْ شَاءَ اَلله عَزَّوَجَل বাচ্চা ঘা, বিচি, ফোড়া ইত্যাদি চর্মরোগ থেকে মুক্ত থাকবে।

(৩) লবণ মিশ্রিত পানি দিয়ে কিছুদিন বাচ্চাদের গোসল করাতে থাকুন যা বাচ্চাদের সুস্থতার জন্য অত্যন্ত উপকারী।

Wednesday, May 31, 2017

খেজুরের ২৫ টি মাদানী ফুল

১. চিকিৎসকদের চিকিৎসক আল্লাহর হাবীব হযরত মুহাম্মদ এর বিশুদ্ধ বাণী, “উন্নতমানের ‘আজওয়াহ’ (মদীনা মুনাওয়ারার সর্বাপেক্ষা মূল্যবান খেজুরের নাম) এর মধ্যে প্রতিটি রোগের আরোগ্য রয়েছে।” আল্লামা বদরুদ্দীন আইনী হানাফী رضى الله عنه এর বর্ণনা অনুসারে, “সাতদিন যাবত প্রতিদিন সাতটি করে ‘আজওয়াহ’ খেজুর খেলে ‘কুষ্ঠরোগ’ (সাদারোগ) দূরীভূত হয়।” (ওমদাতুল কারী, খন্ড-১৪, পৃ-৪৪৬, হাদীস নং-৫৭৬৮)

খেজুর
২. প্রিয় আকা হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা  এর জান্নাত রূপী বাণী হচ্ছে, “আজওয়া খেজুর জান্নাত থেকে।” এটা বিষ-আক্রান্তকে আরোগ্য দান করে।”(তিরমিযী শরীফ, খন্ড-৪র্থ, পৃ-১৭, হাদীস নং-২০৭৩) বোখারী শরীফের বর্ণনানুসারে, যে ব্যক্তি সকালে ৭টা ‘আজওয়া’ খেজুর খেয়ে নেয়, ওই দিন যাদু এবং বিষ তাকে ক্ষতি করতে পারবে না।” (সহীহ বোখারী, খন্ড-৩য়, পৃ-৫৪০, হাদীস নং-৫৪৪৫)

Saturday, March 25, 2017

রুহানী ইলাজ পর্ব-৪

আমরা এখানে শেয়ার করব আপনাদের সাথে রুহানী চিকিতসা বিষয়ক ৪০ টি এমন কিছু যা দিয়ে আপনারা নিজেই সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাবেন إن شاء الله عزوجل

তো চলুন শুরু করা যাক। এখানে পোস্ট বড় হয়ে যাওয়ার ভয়ে ৪০ টি কে ১০ টি করে মোট চারটি ধারাবাহিকে বিভক্ত করে পোস্ট করা হবে। তাই ১০ টি পেয়ে ক্ষান্ত হবেন না, পূর্বের ও পরবর্তীগুলোও কালেকশন করুন, পড়ুন, আমল করুন।

(বি.দ্র: প্রতিটি ওয়াজিফার শুরু ও শেষে ১ বার করে দরূদ শরীফ পাঠ করে নিন। ফলাফল প্রকাশ না হওয়া অবস্থায় অভিযোগের পরিবর্তে নিজের অসতর্কতার কারণে দুর্ভাগ্য মনে করুন এবং আল্লাহ্ তাআলার প্রজ্ঞার প্রতি দৃষ্টি রাখুন। আরবী উচ্চারণ অবশ্যই শুদ্ধভাবে সঠিক মাখরাজ অনুযায়ী পড়তে হবে)

রুহানী ইলাজ ৩১-৪০ নং ( প্রয়োজনে রুহানী ইলাজ বইটি ডাউনলোড দিতে পারেন এখান থেকে)

রুহানী ইলাজ-৩১>>  বিপদ দূর করার উপায়

“يا قادر” ৪১ বার বিপদ এসে গেলে পাঠ করে নিন, إن شاء الله عزوجل বিপদ দূর হয়ে যাবে।

রুহানী ইলাজ পর্ব-৩

আমরা এখানে শেয়ার করব আপনাদের সাথে রুহানী চিকিতসা বিষয়ক ৪০ টি এমন কিছু যা দিয়ে আপনারা নিজেই সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাবেন إن شاء الله عزوجل
তো চলুন শুরু করা যাক। এখানে পোস্ট বড় হয়ে যাওয়ার ভয়ে ৪০ টি কে ১০ টি করে মোট চারটি ধারাবাহিকে বিভক্ত করে পোস্ট করা হবে। তাই ১০ টি পেয়ে ক্ষান্ত হবেন না, পূর্বের ও পরবর্তীগুলোও কালেকশন করুন, পড়ুন, আমল করুন।

(বি.দ্র: প্রতিটি ওয়াজিফার শুরু ও শেষে ১ বার করে দরূদ শরীফ পাঠ করে নিন। ফলাফল প্রকাশ না হওয়া অবস্থায় অভিযোগের পরিবর্তে নিজের অসতর্কতার কারণে দুর্ভাগ্য মনে করুন এবং আল্লাহ্ তাআলার প্রজ্ঞার প্রতি দৃষ্টি রাখুন। আরবী উচ্চারণ অবশ্যই শুদ্ধভাবে সঠিক মাখরাজ অনুযায়ী পড়তে হবে)

রুহানী ইলাজ ২১-৩০ নং ( প্রয়োজনে রুহানী ইলাজ বইটি ডাউনলোড দিতে পারেন এখান থেকে)

রুহানী ইলাজ-২১>> 

অবাধ্য সন্তান নেককার ও বাধ্যগত করার উপায়
“يا شهيد” ২১ বার। যে সকালে (সূর্য উঠার আগে আগে) অবাধ্য ছেলে-মেয়ের কপালে হাত রেখে আসমানের দিকে মুখ করে পাঠ করবে,إن شاء الله عزوجل তার ছেলে-মেয়ে নেক্কার ও বাধ্যগত হবে।

রুহানী ইলাজ পর্ব-২

আমরা এখানে শেয়ার করব আপনাদের সাথে রুহানী চিকিতসা বিষয়ক ৪০ টি এমন কিছু যা দিয়ে আপনারা নিজেই সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাবেন إن شاء الله عزوجل
তো চলুন শুরু করা যাক। এখানে পোস্ট বড় হয়ে যাওয়ার ভয়ে ৪০ টি কে ১০ টি করে মোট চারটি ধারাবাহিকে বিভক্ত করে পোস্ট করা হবে। তাই ১০ টি পেয়ে ক্ষান্ত হবেন না, পূর্বের ও পরবর্তীগুলোও কালেকশন করুন, পড়ুন, আমল করুন।

(বি.দ্র: প্রতিটি ওয়াজিফার শুরু ও শেষে ১ বার করে দরূদ শরীফ পাঠ করে নিন। ফলাফল প্রকাশ না হওয়া অবস্থায় অভিযোগের পরিবর্তে নিজের অসতর্কতার কারণে দুর্ভাগ্য মনে করুন এবং আল্লাহ্ তাআলার প্রজ্ঞার প্রতি দৃষ্টি রাখুন। আরবী উচ্চারণ অবশ্যই শুদ্ধভাবে সঠিক মাখরাজ অনুযায়ী পড়তে হবে)


রুহানী ইলাজ ১১-২০ নং ( প্রয়োজনে রুহানী ইলাজ বইটি ডাউনলোড দিতে পারেন এখান থেকে)


রুহানী ইলাজ-১১>>বিপদ দূর করার উপায়
يا قهار ১০০ বার। যদি কোন বিপদ আসে তবে পাঠ করুন।إن شاء الله عزوجل বিপদ দূর হয়ে যাবে।

Tuesday, March 21, 2017

আমাদের লজ্জাস্থান: আমাদের করণীয়

(পোষ্টটি যেনা, অবৈধ কাজ ও হস্ত মৈথুন, সমকামীতা সম্পর্কিত, যারা ইসলামী নিয়ম খুঁজছেন আশা করি তাদের জন্য খুব উপকারী।)

(পুরো পোষ্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, অবশ্যই পড়বেন শেয়ার করবেন।)
লজ্জাস্থানের হিফাযত বলতে বুঝায়, মানুষ এর অপব্যবহার ও অপপ্রয়োগ থেকে বেঁচে থাকা এবং স্বীয় শরীরের জৈবিক চাহিদা পূরণ তথা যৌন স্পৃহা মেটানোর জন্য সেসব পন্থা অবলম্বন করা যা শরীআত কর্তৃক অনুমোদিত ও স্বীকৃত। অনুপ্রেরণা স্বরূপ লজ্জাস্থান হিফাযত সম্পর্কীত ফযীলত লক্ষ্য করুন।
পবিত্র কুরআনে ইরশাদ হচ্ছে
والذين هم لفروجهم حفظون. الا علي ازواجهم او ما ملكت ايمانهم فانهم غير ملومين. فمن ابتفي وراء ذلك فاولئك هم العدون.
কানযুল ঈমান (কৃত আলা হযরত মুফতী আহমদ রযা খাঁন رحمة الله عليه) হতে অনুবাদ:
“এবং যারা যৌনাঙ্গগুলোকে সংযত রাখে, নিজেদের পত্নীগণ অথবা তাদের ওই শরীআত সম্মত দাসীদের নিকট ব্যতীত যারা তাদের হাতের মালিকানাধীন। এতে তাদেরকে তিরস্কার করা হবে না, সুতরাং যারা এ দু’প্রকার ব্যতীত অন্য কিছু কামনা করে তারাই সীমা লঙ্ঘনকারী।” (পারা-১৮, সূরা আল মুমিন, আয়াত নং-৫-৭)

হস্তমৈথুন: এক অভিশাপ!

অনেকেই বলে থাকেন হস্তমৈথুন কোন ক্ষতিকারক না। তারা ডাহা মিথ্যা কথা বলে থাকে। যেমন- এক শিয়ালের লেজ কাটা যাওয়ার কারণে সে কৌশলে সব শিয়ালের লেজ কাটার ফন্দি আঁটে ঠিক তেমনি যারা নিজেদের অস্তিত্ব বিলীন করে ফেলেছে তারা চাচ্ছে যে এবার নেটে বা যে কোন উপায়ে আরো দশজনকে এই ফাঁদে আটকাই। যাই হোক এগুলো পশ্চিমা বা বিধর্মীদের এক কুট কৌশল। আজকাল অনেক ডাক্তারও পরামর্শ দিয়ে থাকে যে, হস্তমৈথুন ক্ষতিকর না। কেননা, যদি হস্তমৈথুন ছেড়ে দেয় তবে তাদের কাস্টমার অনেক কমে যাবে তাই তারা সুকৌশলে রোগীও বাড়াচ্ছে, অপরদিকে ব্যবসাও চাঙ্গা রাখছে। তাই নিজের অঙ্গ বিকল করার আগে নিজেই স্বিদ্ধান্ত নিন। পরে পস্তাবেন না।


হস্তমৈথুনের ক্ষতিকারক ২৬টি দিক

১। মন দুর্বল হয়ে পড়ে।
২। পাকস্থলী, ৩। যকৃত এবং ৪। হৃদপিন্ড নষ্ট হয়ে যায়।
৫। দৃষ্টিশক্তি হ্রাস পায়।

স্বপ্নদোষ কোন রোগ নয়!

স্বপ্নদোষ একটি প্রাকৃতিক উপায়। যা কস্মিন কালেও অসুস্থতা নয়। মানুষের বীর্য প্রতিনিয়ত উৎপাদন হতে থাকে। উৎপাদিত বীর্য একটি থলিতে জমা হয়। যখন থলি ভরে যায় তখনি তা বের হতে চায়। যৌন মিলন না করে থাকলে তা ঘুমের মধ্যে উত্তেজনায় বেরিয়ে আসে। যা পুরুষের যৌন কষ্ট থেকে বাঁচার একটি মাধ্যম বটে। স্বপ্নদোষ যদি রোগ হত, তা প্রত্যেক পুরুষের (খুব কম সংখ্যক বাদে) বালেগ হওয়ার পর হতে হত না । কারণ একটি রোগ সবার একই সময়ে হতে পারে না। যা স্বাভাবিক বিষয় তা-ই সবার মাঝে দেখা দেয়। যেমন দাঁড়ি মুছ গজানো নির্দিষ্ট বয়সের সাথে স্বাভাবিক তেমনি স্বপ্নদোষও নির্দিষ্ট বয়সের সাথে একটি স্বাভাবিক বিষয়। প্রস্রাব থলি ভরে গেলে যেমন প্রস্রাব করতে হয়, তেমনি বীর্য থলিও ভরে গেলে তা বের করার প্রয়োজন হয়। তাই ঘুমের মধ্যে তা বের হয়ে আসে।
যদিও বাংলায় একে স্বপ্নদোষ নাম দেয়া হয়েছে ইংরেজীতে কিন্তু কোন দোষ বিষয়ক শব্দ এতে নাই। ইংরেজী শব্দ- Wet Dream বা ভিজা স্বপ্ন।

হকার বা ভুয়া প্রতিষ্ঠান (এমনকি অনেক এমবিবিএস ডাক্তারও) যে লিফলেট বিলি করে তাতে লিখা থাকে স্বপ্নদোষ একটি রোগ বা মহা রোগ। আপনাকে রোগের ভয় দেখিয়ে পয়সা কামানো তাদের মুল উদ্দেশ্য। আপনি প্রতারিত হবেন যদি তাদের কথায় পা বাড়ান। আপনাকে পুরুষত্ব হীন করে বাড়ি পাঠাবে।

আল্লাহর অশেষ রহমত যে, উৎপাদিত অতিরিক্ত বীর্য স্বপ্নদোষ এর মাধ্যমে বের করে দেন। স্বপ্নদোষ না হলে পুরুষের কিছু সমস্যা হয়। তার মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হত পুরুষ যৌনতায় পাগল হয়ে নিজের মা বোনও চিনত না। এছাড়াও হস্তমৈথুন করা, জিনা করা, লিঙ্গ ও অন্ডকোষ ব্যথা করা ও ফুলে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিত।

আসুন না, আল্লাহর শোকরিয়া আদায় করি- যে তিনি আমাদের কষ্ট না দিয়ে স্বপ্নদোষ এর মত বিশেষ ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। الحمد لله

রুহানী ইলাজ পর্ব-১

আমরা এখানে শেয়ার করব আপনাদের সাথে রুহানী চিকিতসা বিষয়ক ৪০ টি এমন কিছু যা দিয়ে আপনারা নিজেই সমস্যার হাত থেকে রেহাই পাবেন إن شاء الله عزوجل
তো চলুন শুরু করা যাক। এখানে পোস্ট বড় হয়ে যাওয়ার ভয়ে ৪০ টি কে ১০ টি করে মোট চারটি ধারাবাহিকে বিভক্ত করে পোস্ট করা হয়েছে। তাই ১০ টি পেয়ে ক্ষান্ত হবেন না, পরবর্তীগুলোও কালেকশন করুন, পড়ুন, আমল করুন।

(বি.দ্র: প্রতিটি ওয়াজিফার শুরু ও শেষে ১ বার করে দরূদ শরীফ পাঠ করে নিন। ফলাফল প্রকাশ না হওয়া অবস্থায় অভিযোগের পরিবর্তে নিজের অসতর্কতার কারণে দুর্ভাগ্য মনে করুন এবং আল্লাহ্ তাআলার প্রজ্ঞার প্রতি দৃষ্টি রাখুন। আরবী উচ্চারণ অবশ্যই শুদ্ধভাবে সঠিক মাখরাজ অনুযায়ী পড়তে হবে)


রুহানী ইলাজ ১-১০ নং ( প্রয়োজনে রুহানী ইলাজ বইটি ডাউনলোড দিতে পারেন এখান থেকে)



রুহানী ইলাজ-১ >> শয়তানের ক্ষতি থেকে বাঁচার উপায়

যে প্রত্যহ নামাযের পর “هُوَ اللهُ الرَحِيم” ৭ বার পাঠ করবে, إن شاء الله عزوجل শয়তানের ক্ষতি হতে বেঁচে থাকবে এবং তার ঈমানের সাথে মৃত্যু নছীব হবে।

পোস্ট শ্রেণি

অন্যান্য (15) অযু-গোসল-পবিত্রতা (14) আকিকা (1) আমাদের কথা (1) আযান (3) আযাব (4) ইতিকাফ (1) ইফতারী (1) ইবাদত (14) ইসলামী ইতিহাস (8) ঈদের নামায (1) ওমরা (27) কবর যিয়ারত (8) কাযা নামায (3) কারবালা (7) কালিমা (1) কুরবানী (6) কুসংস্কার (3) খেজুর (1) চিকিৎসা (12) জানাযা নামায (3) তওবা (4) তারাবীহ (3) দিদারে ‍মুস্তফা (1) দুরূদ শরীফের ফযিলত (8) নামায (24) নিয়ত (2) পর্দা ও পর্দার বিধান (15) পিতা-মাতা হক্ব (1) প্রতিযোগিতা (2) প্রশ্নোত্তর (16) ফয়যানে জুমা (3) ফযিলত (11) বদ আমল (5) বিদআত (4) ভালবাসা (1) মওত-কবর-হাশর (7) মদিনা (2) মনীষীদের জীবনী (7) মা (1) মাদানী ফুল (28) মাসাইল (88) মিলাদুন্নবী (2) মিসওয়াক (1) মুহাররম (2) যাকাত-ফিতরা (1) রজব (3) রমযান (13) রুহানী ইলাজ (4) রোজা (17) লাইলাতুল ক্বদর (1) শাওয়াল (1) শাবান (3) শিক্ষনীয় ঘটনা (2) শিশু (3) সদক্বাহ (1) সাহরী (1) সিরাতুন্নবী (2) সুন্নাত ও আদব (26) স্বাস্থ্য কথন (10) হজ্ব (27) হাদিস (1)

আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন